মাত্র ১ জিবি পেনড্রাইভ দিয়ে উইন্ডোজ সেভেন লাইভ সিডি চালান - আপনার মিনি কম্পিউটার

“ধ্যাৎ, উইন্ডোজ ক্র্যাশ করার আর সময় পেলো না ? কতো দরকারি ফাইল রয়েছে C Drive-এ। ইস্‌ , যদি একবার কম্পিউটারটি ওপেন করতে পারতাম ! তাহলে আমার গুরুত্বপূর্ণ ফাইলগুলো অন্য ড্রাইভে সরিয়ে রাখতে পারতাম।” - আপনার মনের অবস্থা যদি কখনও এমন হয়ে থাকে তাহলে আপনি বুঝবেন গুরুত্বপূর্ণ ফাইল হারানোর জ্বালা। আর যদি এমন বিরক্তিকর অভিজ্ঞতার সম্মুখিন না হতে চান তাহলে আজকের এই পোস্টটি আপনাকে হয়তো সাহায্য করতে পারবে।

কেমন হতো যদি আপনার পকেটে থাকা পেনড্রাইভটি ইমার্জিন্সি কম্পিউটার হিসেবে কাজ করতো? ক্র্যাশ হয়ে উইন্ডোজ কাজ না করা কম্পিউটার ওপেন করে C Drive থেকে দরকারি ফাইল সরিয়ে রাখতে পারতেন? নিশ্চয়ই ভালো! তাই না? তাহলে চলুন পেনড্রাইভে উইন্ডোজ সেভেনের লাইভ ভার্সনটি বুট করে নিই।

প্রয়োজনীয় উপকরণ

১. একটি পেনড্রাইভ (কমপক্ষে ১ জিবি)
২. লাইভ উইন্ডোজ সেভেন আই.এস.ও ফাইল
৩. কম্পিউটারে একটি ভার্চুয়াল সিডি/ডিভিডি ড্রাইভ
৪. বুটাবল সফটওয়্যার

কার্যপ্রনালী

১. আপনি যেহেতু পেনড্রাইভ থেকে লাইভ উইন্ডোজ সেভেন চালাতে চাচ্ছেন তাই ধরে নিতে পারি আপনার কমপক্ষে ১ জিবির একটি পেনড্রাইভ আছে। এবার Windows 7 Live আই.এস.ও ফাইলটি ডাউনলোড করে নিন।
ডাউনলোড
সাইজ ৬২৯ মেগাবাইট
Skip Ad করতে হবে
২. আই.এস.ও ফাইলটি পেনড্রাইভে কপি করার জন্য হয় ফাইলটি সিডিতে রাইট করে সিডি/ডিভিডি ড্রাইভে রান করাতে হবে। না হয় আই.এস.ও ফাইল ওপেন করার জন্য কোন ওপেনার লাগবে। অথবা আমরা চাইলে আই.এস.ও ফাইলটি সরাসরি আমাদের কম্পিউটারে একটি ভার্চুয়াল সিডি/ডিভিডি ড্রাইভ তৈরি করে ওপেন করতে পারি। আমি ভার্চুয়াল ড্রাইভ দ্বারা ওপেন করার পক্ষে। যদি আপনার কম্পিউটারে কোন ভার্চুয়াল সিডি/ডিভিডি ড্রাইভ না থাকে তাহলে নিচের পোস্টটি অনুসরণ করতে পারেন।
আপনার কম্পিউটারে তৈরি করে নিন ভার্চুয়াল সিডি/ডিভিডি রম
এবার আই.এস.ও ফাইলটি ভার্চুয়াল সিডি রমে মাউন্ট করুন। প্রয়োজনে নিচের চিত্র অনুসরণ করুন।
mount iso file with virtual drive
৩. এবার পেনড্রাইভ বুটাবল করার জন্য আমরা HP USB Formatter সফটওয়্যারটি ব্যবহার করবো। এজন্য প্রথমে HP USB Formatter সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে নিন।
ডাউনলোড
সাইজ ৪৩২ কিলোবাইট
Skip Ad করতে হবে
আপনার পেনড্রাইভ যদি কম্পিউটারে কানেক্ট করা না থাকে তাহলে কানেক্ট করুন। HP USB Formatter এর ওপর মাউসের রাইট বাটন ক্লিক করে Run as Administrator হিসেবে ওপেন করুন। যদি কোন পারমিশন চায় তাহলে Yes চাপুন।
hp usb formatter open as administrator
৪. এবার Device ঘরে আপনার পেনড্রাইভ নির্বাচন করুন। File System হিসেবে NTFS নির্বাচন করুন। Volume label-এ চাইলে একটি নাম দিতে পারেন। না হয় খালি রাখুন। Format options থেকে Quick Format ঘরে টিক দিন। প্রয়োজনে নিচের চিত্র অনুসরণ করুন।
format pendrive with hp usb formatter
৫. এবার Start বাটনে ক্লিক করুন এবং যে বার্তাগুলো আসবে তা Yes এবং Ok করুন। এবার আপনার পেনড্রাইভ ফরম্যাট করার কাজ শেষ।
৬. এবার আপনার ভার্চুয়াল সিডি রমে মাউন্ট করা Windows 7 Live এর সকল ফাইল কপি করে আপনার ফরম্যাট করা পেনড্রাইভে পেস্ট করুন।
copy windows 7 live files to pendrive
৭. সমস্ত ফাইল কপি করা শেষ হলে এবার আমাদের পেনড্রাইভটি বুট করার জন্য ফিক্স করে নিতে হবে। এজন্য আমাদের একটি সফটওয়্যারের প্রয়োজন পড়বে। সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে নিন।
ডাউনলোড
সাইজ ৯৪২ কিলোবাইট
Skip Ad করতে হবে
৮. Win2USB Installer Maker সফটওয়্যারটি Run as Administrator হিসেবে ওপেন করুন। কোন অনুমতি চাইলে Yes করুন।
win2usb-run-as-administrator
৯. ‍Select a USB Drive ঘরে আপনার পেনড্রাইভের Drive number (যেমন: J) নির্বাচন করে দিন। এক্ষেত্রে অবশ্যই আপনি যে পেনড্রাইভে উইন্ডোজ ফাইল কপি করেছেন তা হতে হবে। এবং সবশেষে Fix USB boot বাটনে ক্লিক করুন। Completed! বার্তা আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। প্রয়োজনে নিচের চিত্র দেখুন।
fix prendrive by win2usb

আপনি যদি সঠিকভাবে কাজগুলো করতে পারেন তাহলে আপনার পেনড্রাইভ লাইভ উইন্ডোজ রান করার জন্য প্রস্তুত। এবার শুধু কম্পিউটারের বুট সেটিংস ঠিক করে নিতে হবে।

বায়োস সেটআপ

১. প্রথমে কম্পিউটার চালু থাকলে রিস্টার্ট দিন। আর না থাকলে স্টার্ট করুন।
২. রম অ্যাকটিভ হওয়ার সাথে সাথে (মাদারবোর্ডের প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠানের নাম) বায়াসে ঢোকার বাটন চাপুন। বায়াসে ঢোকার বাটন সাধারণত F2 হয়। F1, F8 বা অন্য কিছুও হতে পারে। বায়াসে ঢোকার বাটন জানতে কম্পিউটার ওপেন করে মনিটরের নিচের দিকে ভালো করে খেয়াল রাখুন Boot এর জন্য কোন বাটন দেখায়।
৩. বায়াসে ঢোকার পরে Boot থেকে Boot Device Priority তে যান এবং 1st Device Priority হিসেবে Removable Device সিলেক্ট করে দিন।
৪. Boot থেকে Hard Disk Device তে যান এবং এখানে 1st Device হিসেবে আপনার পেনড্রাইভের নাম দেখিয়ে দিন। (সবার নাও লাগতে পারে আবার সবার এই অপশন নাও থাকতে পারে)।
৫. F10 দিয়ে সেভ করে বেরিয়ে আসুন।
৬. এবার পিসি স্টার্ট করে দেখুন আপনার পেনড্রাইভ থেকে লাইভ উইন্ডোজ সেভেন ওপেন হয়েছে।

আপনি যদি এই টিউটোরিয়ালটির সবকিছু সঠিকভাবে অনুসরণ করে সবকিছু সম্পন্ন করতে পারেন তাহলে আশা করি সফলভাবে আপনি পেনড্রাইভ থেকে লাইভ উইন্ডোজ সেভেন রান করাতে পারবেন। যদি কোন সমস্যা মনে করেন তাহলে কমেন্ট সেকশনে লিখুন।

No comments:

Powered by Blogger.